যে ইঞ্জিন এর ক্ষমতা আপনার ধারনার ঊর্ধ্বে | Biggest Engine in Bangla

0
542
ইঞ্জিন

যে ইঞ্জিন এর ক্ষমতা আপনার ধারনার ঊর্ধ্বে

একেবারে অবিশ্বাস্য একটি ইঞ্জিন নিয়ে আজকের আয়োজন। আপনারা হয়তো অনেকেই অনেক বড় বড় ইঞ্জিন দেখেছেন বা কোন না কোন ভাবে পরিচিত। কিন্তু আজ আপনাদের যে ইঞ্জিন এর সাথে পরিচয় করাবো সেটি আপনার ধারনাকেও হার মানাবে। আর আরো জানলে অবাক হবেন যে এই ইঞ্জিন পুরো পৃথিবীতে মাত্র ২৫টি রয়েছে। কি,কিছুটা অবাক হলেন তো? আপনার অবাক হবার পরিমানটা কিছুক্ষণের মাঝেই আরো বড় হতে চলেছে। চলুন আসল যায়গায় যাই এবার।

ইঞ্জিন এর নামঃ Wartsila sulzer RTA96-C

ইঞ্জিন

এই Wartsila sulzer RTA96-C টি ১ লাখ ৯ হাজার হর্সপাওয়ার  এর শক্তি-সম্পূর্ণ  এবং বিশ্বের বৃহত্তম এবং সবথেকে শক্তিশালী ইঞ্জিন হিসেবে পরিচিত। আর এই সবথেকে শক্তিশালী ইঞ্জিন এর নির্মাতা দেশ ইঞ্জিন নির্মাণে অনেক আগে থেকেই বেশ পরিচিত নাম। তাদের অনেক রকমের ইঞ্জিনের মাঝে এটিও ছিলো সবথেকে বড় ইনভেনশন। আর এই গর্বিত দেশটির নাম FINLAND.

আকাশে বিমান উড়ার কোশল জানতে এখানে ক্লিক করুন

চুরি হয়ে যাওয়া মোবাইল ফিরে পাবার উপায় জানুন এখানে ক্লিক করে

ইঞ্জিন এর বর্ণনা

এই দৈত্য আকারের ইঞ্জিনটির ওজন ২,৩০০টন এবং  এটি ৪৪-ফুট লম্বা এবং ৮০ ফুট দীর্ঘ ।যদি একটি ভিন্নভাবে আমরা কল্পনা করি তাহলে  সব মিলিয়ে এটা দেখতে অনেকটা একটি চারতলা বিল্ডিং এর সমান। কিন্তু এটাকে বিভিন্ন যায়যায় নেবার জন্য অর্থাৎ ট্রান্সপোর্টের সুবিধার্তে এটাকে খন্ড খন্ড করা যায়। এই ইঞ্জিনটি ২০ ফুটের কনটেইনার বাহি একটি জহাজকে ২০ নট দ্রুত গতিতে তাড়িত করার ক্ষমতা রাখে। আর এটার ১৪ বিল্ট-ইন সিলিন্ডারের প্রত্যেকটি একটি চক্রের ৬.৫ আউন্স ডিজেল গ্রহন করে যা ৫৭০০ কিলোওয়াট শক্তি উত্পাদন করতে সক্ষম । অন্যদিক দিয়ে হিসাব করলে, এটা ১,০৭,২৮৯HP জেনারেট করতে পারে যা  কিনা একটি ছোটখাটো শহরের বিদ্যুৎ সাপ্লাই দেওয়ার জন্য যথেষ্ট । তাহলে একটু কল্পনা করুন আপনি ছবিতে যে ইঞ্জিনটি দেখছেন তার ক্ষমতা কি বিশাল।

ইঞ্জিন

এই ইঞ্জিনটি চালিত অবস্থায়  প্রতিদিন ৪৫ হাজার লিটার ভারী জ্বালানি (১ -গ্রেট মানের ডিজেল) জোগান দেয়ার প্রয়োজন পরে এবং এটি সর্বোচ্চ ৮৫% লোডে চলার ক্ষমতা রাখে। পুরো পৃথিবীর মহাসাগরগুলিতে বর্তমানে এরকম ২৫ টি ইঞ্জিন রয়েছে। আর এই ২৫টি  ইঞ্জিন নিয়ে ২৫ টি জহাজ ঘোরাঘুরি করছে মোট ৮৬ টি পথে ধরে। এই জাহাজগুলী চীন হতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পণ্য বহন করে থাকে যেটি কিনা অন্য যে কোন জাহাজের থেকে প্রচুর অর্থ এবং সময় সাশ্রয় করে চলেছে। আর এই  ইঞ্জিন এর সবথেকে বড় সুবিধাটা হচ্ছে এটি অত্যন্ত দক্ষ এবং এর সর্বনিম্ন দূষণকারী জাহাজগুলোর মাঝে একটি।

তাই আমরা সব মিলিয়ে বলতে পারি যে এটি মানব প্রকৌশলের সবচেয়ে আশ্চর্যজনক একটি সৃষ্টি। এরকম আরো অনেক প্রযুক্তি আছে যেগুলো আমাদের সকল দিক থেকে এগিয়ে নিয়ে চলেছে। বিজ্ঞান আমাদের করেছে আধুনিক এবং বাঁচিয়েছে সময় এবং পরিশ্রম ।

ইঞ্জিন

আকাশে বিমান উড়ার কোশল জানতে এখানে ক্লিক করুন

চুরি হয়ে যাওয়া মোবাইল ফিরে পাবার উপায় জানুন এখানে ক্লিক করে

বন্ধুরা আপনাদের প্রযুক্তি নিয়ে আরো কোন বিষয় নিয়ে জানতে আগ্রহ হলে আমাদের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানান। EEEcareers সবসমইয়ি চেষ্টা করে আপনাদের সকল প্রশ্নের উত্তর দেয়ার। আজ এই পর্যন্তই, ভালোথাকুন সুস্থ থাকুন সবাই।

LEAVE A REPLY